সরে দাঁড়ালো লিবিয়ার বিদ্রোহী ত্রিপোলি সরকার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: লিবিয়ার স্বৈরশাসক মুয়াম্মার গাদ্দাফির পতনের পর দেশটিতে সরকার গঠন নিয়ে চলে আসা বিদ্রোহের ইতি ঘটেছে। আন্তর্জাতিক মহলে অস্বীকৃত রাজধানী ত্রিপোলির সরকার জাতিসংঘ স্বীকৃত বিরোধী তবরুক সরকারের কাছে ক্ষমতা সমর্পণ করেছে। এতে করে বহুদিন ধরে চলে আসা লিবিয়া সংঘাতও বন্ধ হবে।  মঙ্গলবার একটি বিবৃতিতে এই কথা জানানো হয়। এক সপ্তাহ আগে তবরুক সরকারের প্রধানমন্ত্রী ফায়েজ আল-সারাজ ত্রিপোলি পৌঁছেছিলেন জাতিসংঘ সমর্থিত যৌথ সরকারের পক্ষ থেকে ক্ষমতার ভারসাম্য করার জন্য।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘আমরা আপনাদের জানাচ্ছি, কার্যনির্বাহী ক্ষমতার উপর ভরসা করে আমরা আমাদের সমস্ত কার্যক্রম স্থগিত করছি।’ বিবৃতিতে খলিফা ঘোয়েলের নেতৃত্বাধীন তথাকথিত ন্যাশনাল স্যালভ্যাশন সরকারের প্রতীক সাটা ছিল।আরো বলা হয়, খলিফা ঘোয়েল ও তার মন্ত্রীরা সবাই দেশের ভবিষ্যৎ, রক্তপাত ও হানহানি বন্ধে ক্ষমতা হস্তান্তর করছেন। কাজেই লিবিয়ার ভবিষ্যৎ নিয়ে তারা আর দায়ী থাকবেন না। উল্লেখ্য, ২০১১ সালে ন্যাটো সমর্থনে দীর্ঘদিনের স্বৈরশাসক গাদ্দাফির পতন হলে দুই দলে ভাগ হয়ে পড়ে লিবিয়ার ক্ষমতা। এর পর থেকে অস্থিতিশীল অবস্থায় রয়েছে দেশটি।