মজাদার বিবিখানা পিঠা

আফরিনা ফেরদৌস : পিঠা খেতে আমরা সবাই খুব পছন্দ করি। তবে পিঠার ব্যাপারটা শীতকালেই বেশি জমে। কুয়াশা পড়া শীতের সকালে নতুন চালের পিঠা, রসের গুড় আর কাঁচা রসের গন্ধের কথা আর কী বলব। শহরের এই ইট কাঠের খুপরিতে বসে আমরা আমাদের ছোটখাটো বাঙালিয়ানাকে হারিয়ে ফেলছি না তো? শহরের দৌড়ে চলা সময়ে পিঠা বানানোর ব্যাপারটা বেশ ঝামেলাপূর্ণ হওয়ায় আমরা বাসায় না বানিয়ে, কিনে খেতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি। তবে যারা এখনো পিঠা ঘরে বসে বানিয়ে খেতে পছন্দ করেন তাদের জন্য পরিবেশন করছি এই ভিন্নধর্মী পিঠার রেসিপিটি।

 

উপকরণ:
চালের গুড়া বা ময়দা- ২কাপ
ডিম- ৪টি (ফেটানো)

নারকেল- ১ কাপ (মিহি কোরানো)
চিনি- ১ কাপ
গুড়া দুধ- ৩/৪ কাপ
ঘি- ৩/৪ কাপ
মাখন- ১ টেবিল চামচ
দারুচিনি গুড়া- ১/২ টেবিল চামচ
পানি- ১ কাপ
লবন- ১/২ চা চামচ
পেস্তা ও কাজু বাদাম- কুচি (সাজানোর জন্য)
অন্যান্য- ১ টেবিল চামচ ঘি পাত্রে ব্রাশ করে নেওয়ার জন্য।

 

পদ্ধতি:
• প্রথমে একটি ফ্রাই প্যানে চালের গুড়া ২-৩ মিনিটের জন্য ভেজে নিন। তারপর মিক্সিং বোলে নিন।

 

• ১ টেবিল চামচ ঘি, পেস্তা ও কাজু বাদাম বাদে সব উপকরণ একসঙ্গে মেখে নিন। সব উপকরণ ভালোভাবে মাখতে হবে যাতে পিঠা সুন্দর হয়।

 

• একটি বেকিং প্যানে ১ টেবিল চামচ ঘি ব্রাশ করে নিন। মাখন দিয়ে দিন। পুরো মিশ্রনটি দিয়ে ২০০ ডিগ্রি তাপমাত্রায় ১ ঘণ্টা বেক করুন। ভিন্ন ভিন্ন ওভেনে ভিন্ন ভিন্ন সময় লাগতে পারে। সেক্ষেত্রে আপনি একটি চিকন কাঠি দিয়ে পরীক্ষা করতে পারেন যে পিঠাটি নরম আছে কি না।

 

• বাসায় যদি ওভেন না থাকে তবে গ্যাসের চুলায়ও আপনি পিঠাটি বানাতে পারেন। সেক্ষেত্রে পিঠার সাঁচে ঘি ব্রাশ করে নিয়ে, মিশ্রণটি ঢেলে দিয়ে, একটি বড় পাত্রে সাঁচটি বসিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিয়ে হবে। মাঝারি আঁচে রান্না করলে প্রায় এক ঘণ্টা লাগতে পারে। আধা ঘণ্টা পর পর কাঠি দিয়ে পরীক্ষা করে দেখুন যে পিঠা নরম আছে কি না।

 

• পিঠা হয়ে গেলে ওপরে পেস্তা ও কাজু বাদাম কুচি করে দিন। ঠান্ডা হলে কেটে কেটে পরিবেশন করুন।