মাদকাসক্ত ছেলের হাতে বাবা খুন

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জের কটিয়াদিতে মাদকাসক্ত ছেলে হাতে বাবা খুন হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। বুধবার মাদকাসক্ত ছেলের হাতুড়ি পেটায় গুরুতর আহত বাবা এমদাদুল কবীরকে (৬৫) ঢাকায় পাঠানোর সময় দুপুরে তার মৃত্যু হয়। নিহত এমদাদুল কবীর একজন মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন এবং তিনি কটিয়াদি বাজারে ব্যবসা করতেন।আহত বাবাকে উদ্ধার করতে গিয়ে ওসিসহ তিন পুলিশ কর্মকর্তা ও এক কাউন্সিলর আহত হয়েছেন। কটিয়াদি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুস সালাম জানান, পৌর এলাকার পশ্চিমপাড়া এলাকার বাসিন্দা মুক্তিযোদ্ধা এমদাদুল কবীরের ছেলে আনোয়ারুল কবীর জনি (৩৫) মাদকাসক্ত ছিল। জনি এক সময় পৌরসভার ভোগপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকের চাকরি করলেও নেশার কারণে চাকরি চলে যায়। নেশার টাকা জোগাড় করতে সে প্রায়ই বাবার উপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করত।

জানা যায়, মাদকাসক্ত জনি নেশার টাকার জন্য ঘরের দরজা বন্ধ করে তার বাবাকে আটকে রেখে হাতুড়ি পেটা শুরু করে। এ সময় এমদাদুল কবীরের আর্তচিৎকারের আশপাশের লোকজন এসে জড়ো হয়। কিন্তু দরজা বন্ধ থাকায় ভিতরে ঢুকতে না পেরে লোকজন পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করা মাত্র জনি হাতুড়ি দিয়ে তাদের উপর হামলা চালায়। হামলায় ওসি আব্দুস সালাম, এসআই আবুল কালাম আজাদ, এসআই মইন উদ্দিন ও স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর জয়নাল উদ্দিন আহত হন। গুরুতর আহত এমদাদুল কবীরকে প্রথমে বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ও পরে সেখান থেকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠনোর সময় পথে তার মৃত্যু হয়। কটিয়াদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুস সালাম আরো জানান, জনিকে বর্তমানে থানা হাজতে রাখা হয়েছে এবং এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।