যুক্তরাষ্ট্রের ওপর অত্যাধুনিক ক্যামেরাসহ বিমান পাঠাতে চায় রাশিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের আকাশে অত্যাধুনিক ক্যামেরা সম্বলিত নজরদারি বিমান পাঠাতে চায় রাশিয়া। শিগগিরই এর জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে ওয়াশিংটনের কাছে অনুমতি চাইতে পারে মস্কো। অস্ত্র বিস্তার রোধে ‘মুক্ত আকাশ চুক্তি’র আওতায় ৩৪ টি দেশ এধরণের নজরদারিতে সম্মতি দিয়েছে।

তবে এ ধরনের নজরদারি বিমানের ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো। তারা বলছে, নজরদারির আড়ালে গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ করার উদ্দেশ্য থাকতে পারে রাশিয়ার।

‘মুক্ত আকাশ চুক্তি’র আওতায় ৩৪ টি দেশই চুক্তির আওতাভুক্ত যে কোন দেশে নিরস্ত্র অবস্থায় বিমান থেকে পর্যবেক্ষণের ব্যাপারে চুক্তিবদ্ধ। অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ, স্বচ্ছতা ও পর্যবেক্ষকদের সহায়তা জন্য ১৯৯২ সালে চুক্তি স্বাক্ষর ও ২০০২ সাল থেকে তা কার্যকর করা হয়।

একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বার্তা সংস্থা এপিকে জানিয়েছে, ভিয়েনায় কনসালটেটিভ কমিশনে রাশিয়া নজরদারি বিমান ওড়ানোর আনুষ্ঠানিক আবেদন করার প্রস্তুতি গ্রহণ করছে। স্নায়ু যুদ্ধের পর সিরিয়াকে কেন্দ্র করে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার মধ্যে চলমান টানাপড়েনের মধ্যে এমন পদক্ষেপ নিতে চলেছে মস্কো।