তাইওয়ানে ভূমিকম্পে বহুতল ভবন বিধ্বস্ত, নিহত ৫

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : দক্ষিণ তাইওয়ানে একটি শক্তিশালী ভূমিকম্পে ১৭তলা একটি অ্যাপার্টমেন্ট ভবন বিধ্বস্ত হয়েছে। এ ঘটনায়  এখন পর্যন্ত পাঁচজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে ১০ দিনের একটি মেয়ে শিশুও রয়েছে। উদ্ধারকর্মীরা ধ্বংসস্তুপে আটকা পড়া মানুষদের উদ্ধারে চেষ্টা চালাচ্ছে। খবর এএফপি’র।

কর্মকর্তারা বলেন, ভূমিকম্পে চারটি ভবন ধসে পড়েছে। ভোরে দ্বীপটিতে ভূমিকম্প আঘাত হানে।

দমকল কর্মীরা কংক্রিটের ধ্বংসস্তুপের ভেতর থেকে জীবিতদের টেনে বের করছে। তারা অ্যাপার্টমেন্টগুলোর জানালা দিয়ে প্রবেশের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

কর্মকর্তারা বলেন, ব্লকটি থেকে ওই শিশু, এক পুরুষ ও এক নারীকে মৃত অবস্থায় টেনে বের করা হয়েছে। এই ঘটনায় আহত অবস্থায় ২৯ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জাতীয় দমকল সংস্থার মুখপাত্র লিন কুয়ান-চেং বলেন, ‘হাসপাতালে পাঠানোর আগে এই পাঁচজনের দেহে প্রাণের কোনো লক্ষণ ছিল না।’

তিনি আরও বলেন, ‘এখানে বাড়ি বাড়ি তল্লাশি ও উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত থাকবে।’

এখন শতাধিক বাসিন্দাকে ধ্বংসস্তুপের ভেতর থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।স্থানীয় গণমাধ্যম জানায়, টাওয়ারটিতে ২০০ অ্যাপার্টমেন্ট ছিল।

এখনও ওই ধ্বংসস্তুপের ভেতর কতজন আটকা পড়ে আছে কর্মকর্তারা তা জানাতে পারেননি।অপর একটি সাত তলা আবাসিক ভবন থেকে অন্তত ৩০ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে।

এক নারী তার অ্যাপার্টমেন্ট থেকে বের হওয়ার বর্ণনা দিয়ে স্থানীয় এসইটি টিভিকে বলেন, ‘আমি হাতুড়ি দিয়ে অ্যাপার্টমেন্টের দরজা ভেঙে বেরিয়ে এসেছি।’

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা জানায়, শুক্রবার গ্রিনিচ মান সময় ২০০০ টায় কাউশিয়াংয় থেকে ৩৯ কিলোমিটার উত্তরপূর্বে ১০ কিলোমিটার গভীরে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। এটি দ্বীপটির দ্বিতীয় বৃহত্তম নগরী ও গুরুত্বপূর্ণ বন্দর।

প্রাথমিকভাবে বলা হয়েছিল এই ভূমিকম্পের তীব্রতা ছিল ৬.৭। কিন্তু পরে এর তীব্রতা ৬.৪ বলে জানানো হয়।