৪৮০ টাকার জন্য বন্ধুকে খুন!

নীলফামারী প্রতিনিধি : নীলফামারীর জলঢাকায় মাত্র ৪৮০ টাকার জন্য বন্ধুদের হাতে খুন হয়েছেন সাহেব উদ্দিন ঘুটু (১৪) নামে এক স্কুলছাত্র। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার গোলনা কালীগঞ্জ এলাকায়।

সোমবার সকালে পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে এবং হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে তার তিন বন্ধুকে আটক করে।

নিহত সাহেব উদ্দিন ওই এলাকার বাদশাহ মামুদের ছেলে।

আটকরা হলেন- আব্দুর রহমান বাবুর ছেলে মনোয়ার হোসেন (১৫), হযরত আলীর ছেলে সালাউদ্দিন (১৫), আইয়ুব খানে ছেলে টিটু (১১)।

আটকরা হত্যাকাণ্ডে নিজেদের জড়িত থাকার স্বীকার করে পুলিশকে জানায়, রবিবার রাত ৮টার দিকে গোলনা কালীগঞ্জ বঙ্গবন্ধুহাটের বাবার ঝাঁলমুড়ির দোকান থেকে বিক্রির ৪৮০ টাকা নিয়ে একাই বাড়ি ফিরছিল ঘুটু। পথে ঘটুকে আটক করে কৌশলে বিড়ি খাওয়ার কথা বলে পার্শ্ববর্তী একটি ভুট্টাক্ষেতে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর ঘুটুকে ধাক্কা দিয়ে ভুট্টাক্ষেতে ফেলে দিয়ে তার পকেটে থাকা ৪৮০ টাকা ছিনিয়ে নেয়া হয়। প্রতিবাদ করলে ঘটুর গলায় মাফলার পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। এরপর মরদেহ ভুট্রা ক্ষেত থেকে টেনে নিয়ে পার্শ্ববর্তী গ্রামের বাঁশঝাড়ে বেঁধে রেখে তারা বাড়িতে চলে যায়।

জলঢাকা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) মফিজ উদ্দিন শেখ জানান, হত্যাকাণ্ডে জড়িত তিনজনকে তাদের নিজ নিজ বাড়ি থেকে আটক করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা হত্যাকাণ্ডে নিজেদের জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।